08/19/2022
‘কালুরঘাট সেতু’ পদ্মার আদলে নয়, নতুন নকশায় সম্মতি
admin admin

নিউজ ডেক্স ঃ

পদ্মা সেতুর আদলে কর্ণফুলী নদীর ওপর দ্বিতল ‘কালুরঘাট সেতু’ নির্মাণের যে নকশা প্রাথমিকভাবে করা হয়েছিল, সেটি বাতিল হয়েছে। সেজন্য নতুনভাবে আরেকটি নকশা তৈরি করেছে কোরিয়ার একটি প্রতিষ্ঠান, যাতে সম্মতি মিলেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনারও।

সংশ্লিষ্ট রেল কর্মকর্তাদের দেওয়া তথ্যানুযায়ী, দ্বিতলের বদলে একতলা নতুন সেতুর প্রস্তাব করা হয়েছে। সেতুটি হবে চার লেনের। পাশাপাশি দুই লেন থাকবে ট্রেন চলাচলের জন্য আর অপর দুই লেন থাকবে সড়কপথ। পদ্মা সেতুর আদলে তৈরি নকশা চূড়ান্তভাবে অনুমোদন না পাওয়ায় নতুন নকশা করা হয়েছে। যাতে প্রস্তাবিত ব্যয় অন্তত ৫০০ কোটি টাকা বেড়ে দাঁড়িয়েছে সাত হাজার কোটি টাকায়। প্রথমবার প্রস্তাবিত সেতুর চেয়ে এই ব্যয় ছয়গুণ বেশি।

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের সাবেক প্রধান প্রকৌশলী (সেতু) মো. গোলাম মোস্তফা কালুরঘাট সেতু নির্মাণ সংক্রান্ত ফোকাল পারসন হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বলেন, ‘আগে আমরা পদ্মা সেতুর আদলে যে নকশা করেছিলাম সেটি হচ্ছে না। সেটি বাতিল হয়েছে। এখন নতুন আরেকটি নকশা তৈরি করা হয়েছে। ওই নকশায় ছিল ডবল ডেকের সেতু অর্থাৎ ওপরে সড়ক আর নিচে রেললাইন। নতুন নকশায় সেতু নির্মাণের প্রস্তাব করা হয়েছে সিঙ্গেল ডেকে অর্থাৎ চার লেইনের সেতুর একপাশে থাকবে ট্রেন আসা-যাওয়ার দুটি পথ এবং অপর দুটি পথ থাকবে গাড়ি আসা-যাওয়ার জন্য।’

জানা গেছে, নতুন নকশায় সেতু তৈরির প্রস্তাবনা অনুযায়ী ২০২৪ সালের মাঝামাঝি অথবা শেষদিকে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ২০২৮ সালের শেষদিকে অথবা ২০২৯ সালের প্রথমদিকে সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে।

‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যেহেতু সম্মতি দিয়েছেন, সেটাই আমাদের কাছে চূড়ান্ত নির্দেশনা। বিষয়টি আমরা কনসালট্যান্টকে জানিয়ে দিয়েছি। এখন প্রকল্পের সারসংক্ষেপ তৈরি করা হবে, পরামর্শক নিয়োগ হবে। দাতা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সামগ্রিক বিষয় চূড়ান্ত করা হবে। একনেকে অনুমোদনের পর দরপত্র আহ্বান করা হবে। আনুষাঙ্গিক প্রক্রিয়া শেষ করে ২০২৩ সালে না পারলেও ২০২৪ সালের মাঝামাঝি অথবা শেষদিকে কাজ শুরু করতে পারব বলে আশা করছি। কাজ শেষ হতে চার বছরের মতো সময় লাগবে’— বলেন গোলাম মোস্তফা।


  • VIA
  • admin
  • TAGS



LEAVE A COMMENT

সোশাল মিডিয়া

ক্যালেন্ডার