৩ বছরেও মেরামত হয়নি ক্ষতিগ্রস্ত সেতু : দুর্ভোগে ২ উপজেলার হাজার হাজার মানুষ

95

গাইবান্ধা প্রতিনিধি ♦ ৩ বছরেও মেরামত হয়নি ক্ষতিগ্রস্ত সেতু : দুর্ভোগে ২ উপজেলার হাজার হাজার মানুষ। গাইবান্ধা সদর উপজেলার বোয়ালী ইউনিয়নের স্কুলের-বাজার পূর্ব বোয়ালী গ্রামে একটি সেতু বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ৩ বছর আগে। এই সেতু মেরামতের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।

সেতুটি মেরামত না হওয়ায় চলাচলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ১০ গ্রামের মানুষকে। পূর্ব বোয়ালী গ্রামে গাইবান্ধা-কালিরবাজার পাকা সড়কের ওপর নির্মিত বোয়ালী ম্যাটালের সেতুটি ২০১৬ সালে বন্যায় আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

বন্যায় ফুলছড়ি উপজেলার সিংড়িয়া বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে যাওয়ায় পানির তীব্র স্রোতে সেতুটি দেবে গিয়ে একদিকে হেলে পড়ে। বন্ধ হয়ে যায় যান চলাচল। সে সময় সেতুর দুই পাশে বালু ও মাটির বস্তা ফেলে চলাচলের উপযোগী করা হলেও বছর যেতে না যেতেই বালুর বস্তা সরে গিয়ে আবারও এই সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

এরপর ক্ষতিগ্রস্থ সেতু ঘেঁষে একটি বাঁশের সাঁকো তৈরি করে এলজিইডি। মেরামতের অভাবে সে সাঁকোটি জরাজীর্ণ ও চলাচল অনুপযোগী হওয়ায় দু’পাশের এলাকার হাজার হাজার মানুষ সীমাহীন দুর্ভোগে পড়ে।

স্থানীয়রা জানায়, ক্ষতিগ্রস্ত সেতুটি এখনো মেরামত না হওয়ায় কালিরবাজারে অবস্থিত ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদে যাতায়াতে ফুলছড়ির মানুষকে প্রায় তিন থেকে চার কিলোমিটার পথ ঘুরে কাঁচা রাস্তা ব্যবহার করতে হচ্ছে। প্রতিদিন কয়েক হাজার পথচারীসহ দুই উপজেলার প্রায় ১৫ হাজার মানুষ ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। গুরুত্বপুর্ন এই সেতুটি মেরামত করে যান চলাচলের উপযোগী করার দাবি করেন তারা।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) গাইবান্ধা সদর উপজেলা প্রকৌশলী আবুল কালাম আজাদ মোল্লা জানান, সেতুটি নির্মাণের চাহিদাপত্র সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হবে।

রাউজান নিউজ/অামির হামজা.বার্তা বিভাগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here