রাউজানে শ্রেষ্ট অধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম এবার পেলেন বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানী গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড

80

নিজস্ব সংবাদদাতা🔴   রাউজানে শ্রেষ্ট অধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম এবার পেলেন বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানী গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড।

রাউজান উপজেলায় কলেজ পর্যায়ে শ্রেষ্ট অধ্যক্ষ নির্বাচিত হওয়ার পর কৃষিবিদ মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম এবার পেলেন বঙ্গবীর জেনারেল ওসমানী গোল্ডেন এ্যাওয়ার্ড।

জানাগেছে শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় সম্প্রতি ঢাকার বাংলার মুখ ফাউন্ডেশন
তাকে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করেন। ঢাকার বিজয় নগর এলাকার (ভিআইপি ফাইভ স্টার)
হোটেল অর্নেটে দেশের ৩০ জন ব্যক্তিকে এ এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। গুণী ব্যক্তিদের
হাতে পুরস্কার তুলে দেন অনুষ্টানের সভাপতি ও প্রধান আলোচক যতাক্রমে বিচারপতি
আবু কাউছার দবিরুস্মান এবং শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য্য ড. মুহাম্মদ কামাল উদ্দিন এবং অন্যান্য অথিতিবৃন্দ। তার এ প্রাপ্তিতে মঙ্গলবার কলেজ ক্যাম্পাসের একে এম ফজলুল কবির চৌধুরী মিলনায়তনে তাকে সংবর্ধনা দেন হযরত এয়াছিনশাহ পাবলিক কলেজের শিক্ষক-কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ।

কলেজের প্রবীণ বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও নাঠ্যকার ব্যক্তিত্ব বিকিরণ বড়ুয়ার সভাপতিত্বে ও সিনিয়র প্রভাষক মুঃ ফারুকের সঞ্চালনায় প্রধান অথিতি ছিলেন উপজেলা
আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য আলহাজ্ব এস এম বাবর। বিশেষ অথিতি ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মনসুর।

বক্তব্য রাখেন কলেজের সহকারী অধ্যাপক আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবদুল মান্নান,মুহাম্মদ বজলুর
রহমান,মুঃ মঈনুল ইসলাম,সিনিয়র প্রভাষক আবদুল জাব্বার,মুহাম্মদ লোকমান সিকদার,প্রভাষক মঈনুল আমিন আশিক,হেফাজতুর রহমান,রীপা মুহুরী,সুজাবত
আলী,জান্নাতুল কাউছার,বিপিএড শিক্ষক আবদুস সালাম,প্রদর্শক তাজুল ইসলাম,সহ গ্রন্থাগারিক এয়ার মোহাম্মদ,কর্মচারীদের পক্ষে সটু বড়ুয়া প্রমুখ।

এসময় সংর্বধিত অধ্যক্ষ মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে ক্রেষ্ট ও ফুল দিয়ে বরণ করা হয়।
প্রসঙ্গত, চলতি বছরের মার্চ মাসে শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে রাউজান হযরত এয়াছিন
শাহ পাবলিক কলেজের অধ্যক্ষ মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে শ্রেষ্ট অধ্যক্ষ নির্বাচিত
করা হয়। তিনি সর্ব প্রথম ২০০২ সালের ২ জুলাই অত্র কলেজে প্রভাষক পদে যোগদান
করেন।এরপর কলেজের দায়িত্বরত অধ্যক্ষ আলহাজ্ব আব্দুল মোতালেবের মৃত্যুর পর ২৯ মে
২০০৭ সাল হতে ২৫ নভেম্বর ২০১৫ সাল পর্যন্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব পালন করেন
মুহাম্মদ জাহাঙ্গীর।পরবর্তি সরকারী বিধি মোতাবেক ২৬ নভেম্বর ২০১৫ হতে অধ্যক্ষ
পদে নিয়োজিত হন তিনি। অধ্যবধি সুনাম ও দক্ষতার সহিত নিয়োজিত আছে
স্বপদে। তিনি কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলার কালার মারছড়া মারাক্ষাঘোনা
ঈমান তালুকদারের বাড়ীর মরহুম মাষ্টার জাকের আহম্মদ ও মোবাশ্বেরা বেগমের প্রথম
পুত্র। তিনি ১৯৯০ সালে এসএসসি, ১৯৯২ সালে এইচএসসি পাশ করার পর বাংলাদেশ
কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ময়মনসিংহ থেকে বিএসসি ইন এগ্রিকালচার ও এম এস ডিগ্রী অর্জন করেন। পাশা-পাশি উম্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি এম বিএ ডিগ্রীও অর্জন করেন।

তিনি কলেজ অধ্যক্ষ পদের পাশা-পাশি সমাজ ও জন হিতকর কাজেও নিজেকে জড়িত রেখেছেন। বিশেষ করে তিনি নিজ গ্রাম এলাকার
মারক্ষাঘোনা কেন্দ্রিয় জামে মসজিদ, মারাক্ষাঘোনা বাজার জামে মসজিদ ও
ফোরকানিয়া মাদ্রাসার সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছেন। এছাড়া তিনি
ঢাকা খামারবাড়ী কৃষিবিদ ইনষ্টিটিউটেরর আজীবন সদস্য, চট্টগ্রাম জেলাকৃষি বিজ্ঞান সমিতির সভাপতি, বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের কৃষি খামার অনুষ্টানের রিসোর্চ পারসন। এছাড়া তিনি এইচ এস টি টি আই কুমিল্লা
কোট বাড়ী অধ্যক্ষদের শিক্ষা প্রশাসন ব্যবস্থাপনার উপর সফল প্রশিক্ষন সমাপ্ত করে এপ্লাস ফলাফল সাফল্য অর্জন করেন। তিনি ২ কন্যা সন্তানের জনক।

রাউজান নিউজ🔹আমির হামজা🔹বার্তা বিভাগ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here