রাউজান নিউজ

রাউজানে পোকা দমনে কীটনাশকের পরিবর্তে ‘ফেরোমন ও হলুদ ফাঁদ’

মো. হাবিবুর রহমান, (রাউজান নউিজ) ♦

রাউজানে পোকা দমনে কীটনাশকের পরিবর্তে ‘ফেরোমন ও হলুদ ফাঁদ”

চট্টগ্রামের রাউজানে সবজি চাষে পোকা দমনে কীটনাশকের পরিবর্তে ব্যবহার করা হচ্ছে পরিবেশ বান্ধব পদ্ধতি সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ও হলুদ ফাঁদ। সেক্স ফেরোমন ফাঁদ বিগত ৪ বছর ধরে কৃষকরা ব্যবহার করলেও এবার নতুন যোগ হয়েছে হলুদ ফাঁদ। রাউজানে এবার পরীক্ষমলকভাবে ৮ একর জমিতে ১২০টি হলুদ ফাঁদেও (নতুন পদ্ধতি) মাধ্যমে পোকা দমন করা হচ্ছে। এ দুটি পদ্ধতিতে সহজে পোকা দমনের মাধ্যমে উপকৃত হওয়ায় কৃষকেরা দিন দিন এ পদ্ধতির দিকে ঝুঁকছেন। উপজেলা কৃষি বিভাগ সূত্র মতে, বিগত চার বছর আগে এখানে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ পরীক্ষামূলক চালু হয়। সুফল পাওয়ায় ইতিমধ্যে এ পদ্ধতি চাষীদের মাঝে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এ বছর উপজেলার ১ হাজার ৮শ’ ৫০ জন চাষী শীতকালীন সবজি ক্ষেতে এ পদ্ধতি প্রয়োগ করে ক্ষেতে পোকা দমন করছে। পাশাপাশি পরীক্ষামূলক ব্যবহার করা হচ্ছে হলুদ ফাঁদ। এবার উপজেলায় সবজি ক্ষেতে ৮ একর জমিতে ১২০টি হলুদ ফাঁদের মাধ্যমে পোকা দমন করা হচ্ছে। কৃষি বিভাগ জানায়, সাধারণত ক্ষেতে কীটনাশক প্রয়োগ করলে ক্ষতিকর এবং উপকারী দুই ধরনের পোকা মারা যায়। কিন্তু সেক্স ফেরোমন টোপ ও ফাঁদ ব্যবহারে শুধু ক্ষতিকর পোকা মারা যায়। এ পদ্ধতির ব্যবহার অত্যন্ত সহজ এবং খরচও অনেক কম। সবজি ক্ষেতের জন্য এ পদ্ধতি অত্যন্ত কার্যকর। এবার উপজেলায় ৬৪ হেক্টর জমিতে ৮ হজার ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করা হচ্ছে।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা সঞ্চয় কুমার জানান, পুরুষ পোকাকে আকৃষ্ট করার জন্য স্ত্রী পোকা এক ধরনের রাসায়নিক পদাথর্ (স্ত্রী পোকার গন্ধ) নির্গত করে, যা সেক্স ফেরোমন নামে পরিচিত। বর্তমানে এ পদার্থ কৃত্রিম উপায়েও তৈরি করা হচ্ছে এবং বাণিজ্যিক ভাবেও সহজলভ্য। এ পদ্ধতি ব্যবহার করতে হলে আগে ফাঁদ বা টোপ তৈরি করতে হয়। এ টোপ তৈরী করতে ক্ষেতের মাঝখানে বাঁশের খুটিতে পাস্টিকের পাত্র (বয়াম) স্থাপন করতে হবে। ওই পাত্রের তলা হতে উপরের দিকে কমপক্ষে তিনচার সেন্টিমিটার পর্যন্ত সাবান মিশ্রিত পানি রাখতে হবে। প্লাস্টিক পাত্রের উপরের পানি হতে একদেড় ইঞ্চি উপরে সেক্স ফেরোমন টোপটি (লিউর) একটি সরু তার দিয়ে ঝুলিয়ে রাখতে হবে। এ রকম ১২১৫ মিটার দূরে বর্গাকারে জমিতে ফেরোমন ফাঁদ বসাতে হবে। অথবা প্রতি সাড়ে তিন শতাংশ জমিতে একটি ফাঁদ ব্যবহার করা যেতে পারে। একটি টোপ ৪৫৫০ দিন অর্থাৎ এক মৌসুমে দুইটি টোপ ব্যবহার করতে হবে। হলুদ ফাঁদ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘হলুদ রংয়ে আকৃষ্ট হয়ে পোকাগুলো বসলেই আটকে যায়। পোকা দমনে হলুদ ফাঁদ (নতুন পদ্ধতি) পরিক্ষামূলকভাবে প্রথমবার ব্যবহার করে সফলতা পাওয়া যাচ্ছে বলেও জানান তিনি।’

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বেলায়েত হোসেন বলেন, ‘সেক্স ফেরোমন টোপ থেকে স্ত্রী পোকার গন্ধ বের হওয়ায় মূলত টোপটি পুরুষ পোকাকে আকৃষ্ট করে থাকে,ফলে পুরুষ পোকাগুলো পাত্রের ভেতরে ঢোকে পড়ে। পাত্রের তলায় সাবান বা ডিটারজেন্ট মিশ্রিত পানি থাকায় পোকাগুলো ফাঁদের ভেতর মারা যায়। অব্যাহতভাবে পুরুষ পোকা এ ফাঁদে মারা যাওয়ায় স্ত্রী পোকার বংশ বৃদ্ধি ব্যাহত হয়। মাছি পোকা দমনে এ ফাঁদ খুবিই উপকারী। তবে এ ফাঁদ দ্বারা লেদা পোকা দমন সম্ভব হয়না। ক্ষেতে লেদা পোকা দেখা দিলে সীমিত পরিমাণ জৈব সার প্রয়োগ করা হয়। তিনি আরো বলেন, ‘রাউজানের বিভিন্ন এলকায় বিষমুক্ত সবজি উৎপাদন করার জন্য উপজেলা কৃষি বিভাগ থেকে সবজি ক্ষেতের পোকা-মাকড় দমনে কীটনাশকের পরিবর্তে সেক্সপেরোমন ও হলুদ ফাঁদ (নতুন পদ্ধতি) পদ্ধতি ব্যবহার করা হচ্ছে। সবজি ক্ষেতে ফেরোমন ফাঁদ ও হলুদ ফাঁদ ব্যবহার করে বিষমুক্ত সবজি চাষে কৃষকদের আগ্রহ বাড়ছে। কীটনাশাক ব্যবহার করে উৎপাদিত সবজি মানবদেহের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। একারণে আমরা কৃষকদের কীটনাশক ব্যবহারে নিরুৎসাহিত করে বিষমুক্ত ও স্বাস্থ্যবান্ধব সবজি চাষে উৎসাহিত করছি।’

Mir Islam

Add comment

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

নামাজের সময়সূচী

    চট্রগ্রাম
    Monday, 19th April, 2021
    SalatTime
    Fajr4:16 AM
    Sunrise5:34 AM
    Zuhr11:58 AM
    Asr3:25 PM
    Magrib6:21 PM
    Isha7:40 PM

এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি এর উদ্যোগ সমগ্র রাউজানে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার ফলজ চারা রোপন কর্মসূচী

ভয়াবহ আগুন থেকে রক্ষা পেল রাউজানে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে

Most popular

Social Media