রাউজান নিউজ

বাড়তি বেতন ভাতা ছাড়াই শিক্ষকরা ক্লাস নিতে হয় ৬ষ্ঠ থেকে ৮ম শ্রেণির

মীর আসলাম (রাউজাননিউজ):
স্বাধীনতা পূর্ব সময় রাউজান পৌরসভার নয় নম্বারটি ছিল ঝোপঝাড়পূর্ণ জঙ্গলী এলাকা। এখানে ছিল না তেমন কোনো জনবসতি। ওই সময় বিচ্ছিন্ন কিছু বসতি থাকলেও তা ছিল কৃষিজীবিদের খামার বাড়ি। একারণে ব্রিট্রিশ আমলে ভূমি জরিপের (আরএস জরিপ)সময় এলাকাটির নাম রেকর্ড করা হয়েছিল জঙ্গল রাউজান। প্রায় অর্ধশতাব্দিকাল আগে এই এলাকায় কিছু কিছু বসতি স্থাপন শুরু হলে এখানে ১৯৭১ সালে প্রথম একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়। এই বিদ্যালয়ের নামও রাখা হয় জঙ্গল রাউজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। বর্তমানে এই জঙ্গল রাউজান একটি আলোকিত উপশহর। পুরো এলাকাটি নিয়ে এখন রাউজান পৌরসভার নয় নম্বর ওয়ার্ড। এখানে গড়ে উঠেছে শত শত সরকারি বেসরকারি পাকা আধাপাকা বাড়ি।

এই ওয়ার্ডে প্রথম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জঙ্গল রাউজান সরকারি প্রাথমিকটি এখন উন্নিত হয়েছে নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় হিসাবে। এটি উপজেলার একমাত্র নিম্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়। এই বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণ শিশু শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি পড়ান ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদেরও। তবে এই বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের অভিযোগ আছে সরকারি নিদেশনায় বিদ্যালয়টি নিম্ম মাধ্যমিক পর্যায়ে উন্নিত করা হলেও বর্ধিত শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পড়ানোর জন্য কোনো নতুন কোনো শিক্ষক নিয়োগ দেয়নি। প্রাথমিকে শিক্ষক মণ্ডলী বর্ধিত তিনটি শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদান করে সামনের দিকে এগিয়ে দিচ্ছেন। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বরুন কুমার পালিত বলেছেন ২০১৫ সাল থেকে এই বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পাঠদানের নিদেশনা পাওয়া যায়। বিদ্যালয়ের ১২জন শিক্ষক তিনটি বর্ধিত শ্রেণির শিক্ষার্থীদের সফল ভাবে পাঠদান করে আসছেন। অতিরিক্ত তিনটি শ্রেণির পাঠদান করে আসা এই বিদ্যালয়ে শিক্ষকগণ সরকার থেকে বাড়তি কোনো বেতন ভাতা পায় না।

তিনি জানান নৈশ প্রহরী থাকলেও এখন একজন পিয়ন বিদ্যালয়ে জন্য জরুরী।
বিদ্যালয়টির পরিচালনা পরিষদের অভিভাবক সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী বলেছেন এই বিদ্যালয়ের ম্যনিজিং কমিটির সভাপতি পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জমির উদ্দিন পারভেজ এই বিদ্যালয়ের শিক্ষা ও পারিপার্শি¦ক অবস্থার উন্নয়নে অবদান রেখে দেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতির মর্যদা পেয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে তিনি এই ইস্যুতে পদক গ্রহন করেছেন। বিদ্যালয়টি সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়, পুরানো একতলা দুটি ভবনের সাথে শিক্ষার্থীদের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে আরো একটি দ্বিতল ভবন। এই ভবনের উপড়ে নিচে উন্নত পরিসরে নির্মাণ কাজ চলছে চারটি ওয়াশ রুম। একাজে তদারকিতে থাকা ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তা সারজু মোহাম্মদ নাছির জানিয়েছেন ১৫ লাখ টাকা ব্যয়ে ওয়াশ রুম সমূহ নির্মাণ করা হচ্ছে। শাহগদী এন্টারপ্রাইজ এ কাজ করছেন। জানা যায় এই বিদ্যালয়ে এখন প্রাথমিকে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৮৭জন। এবার ষষ্ঠ শ্রেণিতে উন্নিত হবে ৩৪ জন। তিনটি বর্ধিত শ্রেণিতে শিক্ষার্থীর সংখ্যা সর্বমোট ১৬৩জন। শিক্ষকদের অভিযোগ ও দাবির বিষয়টি নিয়ে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুল কুদ্দুছ এর সাথে কথা বললে তিনি বলেন এই নিয়ে সরকারি একটি সুনিদিষ্ট পরিকল্পনা রয়েছে। আস্তে আস্তে সবকিছুর সমাধান হবে।

raozannews

Add comment

Follow us

Don't be shy, get in touch. We love meeting interesting people and making new friends.

নামাজের সময়সূচী

    চট্রগ্রাম
    Tuesday, 3rd August, 2021
    SalatTime
    Fajr4:06 AM
    Sunrise5:29 AM
    Zuhr12:05 PM
    Asr3:29 PM
    Magrib6:41 PM
    Isha8:03 PM

এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী এমপি এর উদ্যোগ সমগ্র রাউজানে ৪ লক্ষ ৫০ হাজার ফলজ চারা রোপন কর্মসূচী

ভয়াবহ আগুন থেকে রক্ষা পেল রাউজানে তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে

Most popular

Social Media