আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত একটি আদর্শের নাম- সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভাণ্ডারী

68

প্রেস বিজ্ঞপ্তি🌏

আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত একটি আদর্শের নাম। – সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভাণ্ডারী।

ইসলাম শান্তি চায়, মতপার্থক্যের চেয়ে আমাদের মাঝে যে মিলগুলো রয়েছে তার ভিত্তিতে আমাদেরকে এগুতে হবে। মাইজভাণ্ডারীয়া ত্বরিকার বৈশিষ্ট্য হচ্ছে জাতি ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার প্রতি সহমর্মিতা ও সদ্ভাব বজায় রাখা। আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাআত একটি আদর্শের নাম। যে আদর্শের মধ্যে আল্লাহ্ ও তাঁর প্রিয় রাসূল (দ.) এবং রাসূলে কারীমের আহলে বাইতগণের আদর্শ চর্চা হয়। তাই বৈরীতা নয়, পারস্পরিক শ্রদ্ধা-সম্প্রীতির ভিত্তিতে আমাদেরকে একতাবদ্ধ হতে হবে।

বাংলাদেশে প্রবর্তিত একমাত্র ত্বরিকা, ত্বরিকা-ই-মাইজভান্ডারীয়ার প্রবর্তক গাউসুল আযম হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ আহমদ উল্লাহ্ মাইজভান্ডারী(ক.)’র প্রপৌত্র ও অছিয়ে গাউসুল আযম খাদেমুল ফোকারা হযরত সৈয়দ দেলাওর হোসাইন মাইজভান্ডারী (ক.)’র প্রথম পুত্র মাইজভান্ডারীয়া ত্বরিকার উজ্জ্বল নক্ষত্র বিশ্ব অলি শাহানশাহ্ হযরত মাওলানা শাহ্সুফি সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (ক.)’র ৩১তম উরস উপলক্ষে গাউসুল আযম মাইজভাণ্ডারীর (ক.) পবিত্র রক্ত ও ত্বরিকতের উত্তরাধিকারী ও রওজা শরীফের খেদমতের হকদার, মাইজভাণ্ডার শরীফ গাউসিয়া হক মন্জিলের সাজ্জাদানশীন, বিশ্ব অলি শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী (ক.)-এর একমাত্র পুত্র ও তাঁরই পবিত্র নামে প্রতিষ্ঠিত ‘এস জেড এইচ এম ট্রাস্ট’-এর মাননীয় ম্যানেজিং ট্রাস্টি আলহাজ¦ হযরত শাহসুফি সৈয়দ মোহাম্মদ হাসান মাইজভাণ্ডারী (ম.জি.আ) মাহফিলে সভাপতির আশীষবাণীতে উল্লেখ করেন।

তিনি আরো বলেন, সমাজকে কিছু দিতে হলে তাদের জন্য কাজ করতে হবে। ভবিষ্যৎ প্রজন্ম এবং সমাজের জন্য আমাদের দায়বদ্ধতা হিসেবে বিশ্বঅলি শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী ট্রাস্ট (এসজেডএইচএম ট্রাস্ট) ৭ দিনব্যাপী কর্মসূচী পালন করেছে।

এর মধ্যে ছিল, ‘একবিংশ শতাব্দির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মুসলিম উম্মাহ্’ শীর্ষক সেমিনার, শাখা কমিটি সমূহের ব্যবস্থাপনায় স্ব স্ব এলাকার মসজিদে কুরআন তেলাওয়াত ও মিলাদ মাহফিল, ট্রাস্ট নিয়ন্ত্রণাধীন প্রতিষ্ঠানসমূহের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভান্ডারীর (কঃ) জীবনী আলোচনা, র‌্যালি, বৃক্ষরোপণ, কবরস্থান ও প্রতিষ্ঠান পরি”ছন্নতা কর্মসূচী এবং ছাত্র-ছাত্রীদের নীতি নৈতিকতা বিষয়ক আলোচনা, ফটিকছড়ি উপজেলার রেজিস্টার্ড এতিমখানাসমূহের ছাত্র-ছাত্রীদের একবেলা খাবার সরবরাহ, ইসলামের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য সম্বলিত দুর্লভ চিত্র ও ভিডিও প্রদর্শনী, নগরীর মুরাদপুর হতে মাইজভান্ডার শরিফ পর্যন্ত বিআরটিসি’র বিশেষ বাস সার্ভিস, উপদেশমূলক, দিক-নির্দেশনা সম্বলিত প্রচার, বিশুদ্ধ পানীয় জল ও অস্থায়ী টয়লেটের ব্যবস্থা, পরিস্কার-পরি”ছন্ন কর্মসূচি।

১১ অক্টোবর শুক্রবার মাইজভান্ডার শরিফ গাউসিয়া হক মন্জিলে বিশ্বঅলি শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারীর ৩১তম উরস শরিফ যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচির মধ্যে ছিল বাদ ফজর রওজা শরিফে গিলাফ চড়ানো, দিনব্যাপী খতমে কুরআন, তাওয়াল্লোদে গাউসিয়া, জিকির-আজকার, যিয়ারত, মিলাদ, সেমা মাহফিল, আখেরী মুনাজাত ও তার্বারুক বিতরণ।

বিশ^অলি শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী(ক.)-এর উরস উপলক্ষে মাইজভাণ্ডার শরীফ গাউসিয়া হক মন্জিল, শাহানশাহ্ হযরত সৈয়দ জিয়াউল হক মাইজভাণ্ডারী(ক.) ট্রাস্ট ও মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রিয় পর্ষদ নিয়ন্ত্রণাধীন দেশে-বিদেশের শাখা কমিটি সমূহের উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচি পালিত হয়। এছাড়াও পবিত্র উরসে মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটির ভারত, সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন, কাতার, ওমান, কুয়েত, সৌদি আরব, যুক্তরাষ্ট্র সহ বিভিন্ন দেশের আশেক-ভক্তগণ উপস্থিত ছিলেন।

কর্মসূচিসমূহ বাস্তবায়ন ও উরস শরিফ নির্বিঘ্নে সম্পন্ন হওয়ায় উপজেলা প্রশাসন, আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস, বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ, মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ-এর সকল পর্যায়ের সদস্যবৃন্দ, সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট সকল কর্মীবাহিনীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো হয়েছে।

কেন্দ্রিয় মাহফিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ভারতের আলীগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের প্রফেসর ও আজমির শরিফের গদিনশীন ড. সৈয়দ লিয়াকত হোসাইন মঈনী, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি ঢাকার অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল ফাতাহ মুহাম্মদ মহিউদ্দীন। মাহফিলে বক্তব্য রাখেন মাওলানা সৈয়দ আহমদুল হক মাইজভান্ডারী, মাওলানা হাফেজ আবুল কালাম, মাওলানা নুর হোছাইন হেলালী সাহেব।

উপস্থিত ছিলেন মাইজভাণ্ডারী গাউসিয়া হক কমিটি বাংলাদেশ কেন্দ্রিয় পর্ষদ সভাপতি আলহাজ¦ রেজাউল আলী জসিম চৌধুরী, অধ্যাপক এ.ওয়াই.এম জাফর, শেখ মুজিবর রহমান বাবুল, সৈয়দ মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দীন, কাজী মোহাম্মদ ইউসুফ, সৈয়দ জহুরুল কাদের আজাদ, এ.এন.এম.এ মোমিন সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

মিলাদ, কিয়াম ও সালাতুসালাম শেষে আখেরী মুনাজাতে তিনি দেশ, জাতি ও বিশ্ব মুসলিম উম্মাহ সহ পৃথিবীর সকল মানুষের কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন আল্লাহ্ রাব্বুল আলামিনের অবারিত দয়া আমাদের সকলের উপর বর্ষিত হোক। বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের রোল মডেল, জাতীয় পর্যায়ে সকল নেতৃবৃন্দ যাতে সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারে ও এই উন্নয়ন যাতে নির্বিঘ্নে এগিয়ে যেতে পারে স্রষ্টার কাছে সেই তৌফিক কামনা করছি। পারস্পরিক শ্রদ্ধার মনোভাব ও আদর্শগত মিলের ভিত্তিতে আমাদেরকে একতাবদ্ধ হতে হবে। বাংলাদেশে মাইজভাণ্ডারী মতাদর্শের ব্যাপক প্রচার ও প্রসারের ভিত্তিতে যে অসম্প্রদায়িকতা গড়ে উঠেছে তা চিরকাল বজায় থাকুক এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

রাউজান নিউজ.আমির হামজা.বার্তা বিভাগ ফোন-০১৫৫৯-৬৩৩০৮০

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here